গৃহস্থালির ১০টি ট্রিক্স যা জানলে আপনি হবেন রান্নাঘরের রাজা বা রানী

গৃহস্থালির কর্মযজ্ঞে এখন আর শুধু মেয়েরাই রাজত্ব করছে না। বরং বর্তমান সময়ে সেখানে বিচরণ ছেলে মেয়ে নির্বিশেষে সবার। তাই রান্নাঘরে যদি স্মার্টভাবে কাজ করতে চান তাহলে গৃহস্থালির কিছু ট্রিক্স জেনে রাখা খুবই ভাল। এখন আমি আপনাদেরকে জানাচ্ছি এমনই ১০টি ট্রিক্স।

সিদ্ধ ডিমের খোসা ছাড়ানো

সিদ্ধ ডিমের খোসা ছাড়াতে গিয়ে আমরা অনেকেই নাকাল হই। কারন অনেক সময় ডিমের খোসার সাথে উঠে আসে ডিমের অংশও। তাই এ ঝামেলে থেকে মুক্তি পেতে আপনি যা করতে পারেন, সেটি হল প্রথমে ডিমটিকে গরম পানিতে ১২ মিনিট সিদ্ধ করুন। তারপর সিদ্ধ ডিম নামিয়ে নরমাল পানিতে রেখে তাতে বরফ দিন। এবং এক চামচ বেকিং সোডা দিন, যখন ডিম পুরোপুরি ঠান্ডা হয়ে যাবে, তখন নিশ্চিন্তে খোসা ছাড়ান। আবার ডিমের দুই প্রান্তে ছিদ্র করে ফুঁ দিয়েও বের করতে পারেন ডিমটি।

ব্লেন্ডার ধোয়ার কৌশল

পাটা পুতার দিন তো শেষ হয়েছে অনেক আগেই। এখন আমরা কোন কিছু গুড়া করতে বা পিষতে ব্লেন্ডারই ব্যবহার করি। ব্লেন্ডারে যেহেতু অনেক রকম দ্রব্য সামগ্রী পিষা হয় তাই মাঝে মাঝেই সেটি ঠিকভাবে পরিস্কার না করলে একটির গন্ধ আরেকটির মধ্যে ঢুকে যেতে পারে। তাই ব্লেন্ডার পরিস্কারের আপনি যা করবেন, সেটি হল, প্রথমে ব্লেন্ডারটি অর্ধকে পানি দিয়ে ভর্তি করুন। তারপর তাতে কয়েক চামচ ডিশ ওয়াশিং ডিটারজেন্ট দিয়ে দিন। এবার ৩০ সেকেন্ড ব্লেন্ডারটি হাই মুডে চালান। ব্যাস এবার ধুয়ে নিলেই ব্লান্ডারটি পরিস্কার হয়ে গেল।

মাইক্রোওয়েভ ওভেন পরিস্কার

মাইক্রোওয়েভ ওভেন বেশী দিন ব্যবহারে এতে এমন ভাবে ময়লা লেগে যায়, যা অনেক সময় উঠানো মুশকিল। তাই ঝামেলা ছাড়া ওভেন পরিস্কারে আপনি যা করতে পারেন, তা হল একটা মগে ভিনেগার নিয়ে তা মাইক্রোওয়েভ ওভেনে ঢুকিয়ে উচ্চ মাত্রায় ১০ মিনিট রাখুন। এতে ওভেনের সব ময়লা নরম হয়ে যাবে। এবার নরম একটি ন্যাকড়া দিয়ে খুব সহজেই ওভেনটি পরিস্কার করে ফেলুন।

বিশ্বের ৯ আজব ও অমিমাংসিত রহস্য

গোল করে ডিম ভাঁজা

সুন্দর গোল আকারের ডিম পোচ দেখতে ও খেতে ভালো লাগলেও, সেটা করা কিন্তু বেশ ঝক্কির একটি বিষয়। তাই গোল করে ডিম পোচ করতে চাইলে আপনি যেটা করবেন. সেটা হল প্রথমে বড় একটি পেঁয়াজকে গোল করে রিং আকারে কাটুন। তারপর সেই গোল রিংটি ফ্রাইপেনে দিয়ে তাতে ডিম ছেড়ে দিন। দেখুন কত সহজে হয়ে গেল গোল ডিম পোচ।

পাইপ দিয়ে কোক খাওয়া

অনেক সময় কোক বা পেপসির ক্যান খাওয়ার সময় তা পড়ে যেতে পারে। আবার পাইপ দিয়ে খেতে গেলে ক্যান ছোট বলে পাইপটিও নড়েচড়ে যায়। তাই এ সময় আপনি যেটি করবেন, তা হল প্রথমে ক্যানটি খুলে তারপর সেই ক্যানের হুকটিতে পাইপ ঢুকিয়ে নিশ্চিন্তে পান করুন পানীয়টি।

স্মার্টলি ফ্যান পরিস্কার

অনেক দিন চললে ঘরের ফ্যানে এমনিতেই অনেক ময়লা জমে যায়। কিন্তু সেই ময়লা পরিস্কার করতে যেয়ে, অপরিস্কার হয়ে যায় পুরো রুম। সে যন্ত্রনা থেকে মুক্তি পেতে আপনি যেটি করতে পারেন, তা হচ্ছে প্রথম কোলবালিশের একটি কাভার খুলে নিন। তার সেই কাভার ফ্যানের পাখায় ঢুকিয়ে ইচ্ছেমত ফ্যান পরিস্কার করুন। ফ্যানের ময়লায় ঘর একটুও অপরিস্কার হবে না।

পানীয় দ্রুত ঠান্ডা করার উপায়

অনেক সময় আমাদের খুব ঠান্ডা পানীয় খেতে ইচ্ছে করে কিন্তু দেখা গেল ফ্রীজে ১০ মিনিট রেখেও তা পর্যাপ্ত ঠান্ড হচ্ছে না। এ সময় কি করবেন আপনি? তখন আসলে আপনাকে যা করতে হবে, তা হল এক টুকরো ভিজা কাপড় দিয়ে বোতলটি মোড়ান। তারপর সেটি ১৫ মিনিট ফ্রীজে রেখে দিন, দেখুন কেমন ঠান্ডা হয়ে গেছে।

গ্লাসে জুস ভরা

এখন তো প্যাকেটে জুস কিনতে পাওয়া যায়। সেই জুস গ্লাসে ঢালতে যেয়ে আমরা অনেকেই সমস্যায় পড়ি। কারন প্যাকেট থেকে জুস ছিটকে পড়ে যায় গ্লাসের বাইরে। এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আপনি যা করতে পারেন, তা হল প্যাকেটের মুখটি নীচের দিকে না রেখে উপরের দিকে রেখে গ্লাসে জুস ঢালুন। দেখুন একটু জুসও বাইরে ছিটকে পড়বে না।

সিদ্ধ আলুর খোসা ছাড়ানো

আলু সব দেশে সব সময় জনপ্রিয় একটি সবজী। বাংলাদেশ-ভারতে তো আলু ভর্তা, আলুর পরাটা খুবই জনপ্রিয়। তবে আলুর যে বিষয়টি সবাইকে বিরক্তির মধ্যে ফেলে তা হল সিদ্ধ আলুর খোসা ছাড়ানো। এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আপনি যা করতে পারেন, তা হল সিদ্ধ করার সময় প্রতিটি আলুর মাঝ বরাবর গোল করে হালকা করে কেটে দিবেন। তারপর সিদ্ধ করবেন সিদ্ধ হয়ে গেলে দেখুন কত সহজে খোসা ছাড়ানো যাচ্ছে।

Leave a Comment